মোঘল সাম্রাজ্য নিয়ে জানার খিদে থেকে এই সাম্রাজ্য নিয়ে লেখা টুকটাক বই পড়ে

মোঘল সাম্রাজ্য নিয়ে জানার খিদে থেকে এই সাম্রাজ্য নিয়ে লেখা টুকটাক বই পড়ে ইতিহাস গুলো জেনে নিয়েছিলাম অনেক আগেই। তারওপর এখন এই সাম্রজ্য নিয়ে এত বড় করে সিরিজ নির্মাণ হয়েছে শুনে বেশ আনন্দিত হয়েছি। দেখেও বেশ উপভোগ করেছি সিরিজটি। এমন ইতিহাস নির্ভর সিরিজ উপমহাদেশে দেখা যায় না। এখন সিরিজটির কিছু বিষয় নিয়ে কথা বলি, অভিনয় এ সবার আগে বলতে হয় খানজাদা বেগম ও সেবানি খান চরিত্রের কথা।

সাম্রজ্য নিয়ে বড় করে সিরিজ নির্মাণ হয়েছে

দুটো চরিত্রই অসাধারণ ভাবে ফুটিয়ে তুলেছে। একদম দশে দশ অভিনয় যাকে বলে। বাবরের চরিত্রে কুনাল কাপুরকে যদিও বেশ মানিয়েছে কিন্তু অভিনয়টা আমার কাছে অনেকটা খাপ ছাড়া লেগেছে। কেন জানি হয়েও হচ্ছিল না!বাকি সবার অভিনয় চোখে লাগার মতন। বিশেষ করে উজির খান ও কাসিম চরিত্র। তারা একদম সর্ব্বোচটা ডেলে দিয়েছে তাদের চরিত্রে।

𝖲𝖾𝗋𝗂𝖾𝗌: 𝖳𝗁𝖾 𝖤𝗆𝗉𝗂𝗋𝖾
𝖫𝖺𝗇𝗀𝗎𝖺𝗀𝖾: 𝖧𝗂𝗇𝖽𝗂
𝖲𝖾𝗌𝗌𝗂𝗈𝗇: 1
𝖨𝖬𝖣𝖻: 3.8/10
𝖯𝖾𝗋𝗌𝗈𝗇𝖺𝗅 𝖱𝖺𝗍𝗂𝗇𝗀: 8/10

সিরিজে জিএফএক্সের কাজ বেশ ভালো লেগেছে। আশার চাইতে ভালো ছিলো। তারওপর অসাধারণ সেট ডিজাইন। সব কিছুতে একটা রাজকীয় ভাব আনতে সফল নির্মাতা। ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিকও মনে ধরার মত।কালার গ্রেডিংও সন্তুষ্টিজনক। ভারতীয় সিরিজ বলে ড্রামাটিক হবে একটু ভেবেছিলাম। তবে অতটা ড্রামাটিক ছিলো না।

জিপি রিচার্জ অফার 2021 জিপি রিচার্জ, মিনিট, ডাটা অফার

তবে ভালো লাগে নি স্কিনপ্লে!কেন জানি পুরো সিরিজে কি একটা তাড়াতুড়ো ছিলো! মনে হয় এত বড় কাহিনী ৮ পর্বে দেখানোর চ্যালেঞ্জ এমনটা হয়েছে। তবে এমন শক্তিশালী কাহিনীকে নির্বিঘ্নে ১৪/১৫ পর্বে প্রথম সিজন শেষ করা যেতো।তবে সামনে আরো সিজন আসবে। বেশ আশা নিয়েই আছি।

সাম্রাজ্য নিয়ে লেখা ইতিহাস

একটা ইন্টাররেস্টিং ফ্যাক্ট হচ্ছে বাবর কিন্তু সত্যিই হুমায়ুন কে বাঁচাতে মারা গিয়েছিলো। একই কাজ আমাদের প্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদও করতে চেয়েছিলো,কিন্তু করে না মৃত্যুভয়ে! সিরিজে ব্যাপারটা যদিও একটু ভিন্ন ভাবে দেখানো হয়েছে। চাইলে দেখতে পারেন,কথা দিলাম বিরক্ত হবেন না, উপভোগই করবেন।

বেদনাদায়ক জন্মদিন!!

জন্মদিন আবার বেদনাদায়ক হবে কেনো? তার ব্যাখ্যা এই ড্রামাটি দেখলেই পাওয়া যাবে। কারণ এই ড্রামা মূলত টাইম ট্রাভেল নিয়ে। ড্রামা প্লট সারাংশ বলতে গেলে, ড্রামা শুরু হয় Oh ha rin নামক এক মেয়েকে দিয়ে যে কিনা তার জন্মদিনের দিন তার পছন্দের মানুষটিকে মৃত দেখতে পায়। তার জন্মদিনের সমস্ত আয়োজন করে তার পছন্দের মানুষটি Seo Jun আত্মহত্যা করে মারা যায়।

বাংলালিংক ইন্টারনেট অফার ২০২১ বাংলালিংকের সকল ইন্টারনেট অফার

Oh ha rin এর জন্য এইটি ছিলো সবচে শকিং এবং হৃদয়বিদারক জন্মদিন। পার হয়ে যায় ১০ টি বছর। এই ১০ বছরেও Ha rin তার সেই প্রিয় মানুষটির কথা ভূলতে পারেনি যাকে সে ভালোবাসতো গভীর ভাবে। ১০ বছর পর Oh Ha rin মৃত্যুর আগে Seo Jun এর লিখে যাওয়া একটি চিঠি পায় যা পড়ে সে জানতে পারে Seo Jun ও Ha rin কে ভালোবাসতো এবং Ha rin এর জন্মদিনের দিন তার ভালোবাসার কথা প্রকাশ করার জন্য অপেক্ষা করে ছিলো।

Name: Blue Birthday
Country: South korea
Genre: Romance, Thriller
Episode: 14
Runtime: each 22 mnts
Blue birthday  বেদনাদায়ক জন্মদিন!!

অদ্ভুত নাম তাইনা?

কিন্তু কি এমন ঘটে গেলো যার কারনে Seo Jun আআত্মহত্যা করলো? এর কিছুদিন পর Oh Ha rin Seo Jun এর পুরাতন ক্যামেরা এবং তার তোলা কিছু ছবি খুজে পায়। সেসব দিনের স্মৃতিচারণ করে Ha rin আরো বেশি কষ্ট পাচ্ছিলো তাই সে ছবি গুলো পুড়িয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয়। একটি ছবি আগুনে পোড়াতেই সে খেয়াল করে সে আসলে পাস্টে চলে এসেছে অর্থাৎ ১০ বছর আগে তার স্কুল লাইফে যখন Seo Jun জীবিত ছিলো।

বিকাশ এজেন্ট ব্যবসা ও বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

তখন সে সিদ্ধান্ত নেয় পাস্টে এসে Seo Jun এর আত্মহত্যার কারনটি জানবে কিন্তু সে যতই এইটি নিয়ে ঘাটাঘাটি করছিলো ততই তার মনে হচ্ছিলো Seo Jun আসলে মারা যায়নি তার মার্ডার হয়েছিলো। আসলে কি ঘটেছিলো? Seo Jun এর মার্ডার হয়েছিলো নাকি সে আত্মহত্যাই করেছিলো? আর যদি মার্ডার হয়ে থাকে তাহলে মার্ডারার কে? তার উদ্দেশ্যই বা কী? পারসোনালি এই ড্রামাটি আমার কাছে অনেক বেশি ভালো লেগেছে। রোমান্স, থ্রিল, সাসপেন্স এর পার্ফেক্ট কম্বিনেশন।

Add a Comment

Your email address will not be published.