মানসিক চাপ, ব্যক্তি স্বাধীনতার কমতি আর একটা দীর্ঘশ্বাস নেয়ার জন্য

মানসিক চাপ, ব্যক্তি স্বাধীনতার কমতি আর একটা দীর্ঘশ্বাস নেয়ার জন্য কখনো কি আপনার এমন মনে হয়েছে যে – ইশশ! কেউ যদি আমাকে কিডন্যাপ করে দূরে কোথাও নিয়ে যেতো ! প্রত্যেকেরই জীবনের মানে ভিন্ন ভিন্ন পর্যায়ে এসে বোধগম্য হয়। পরিবার থেকে কি সবাই সবসময় স্বাভাবিক সাপোর্ট টা পায় ? বা, একজন মেয়ে তার ফ্যামিলির সাথেই বা কতটুকু নিরাপদ ?

অনেক সময় নিজেদের বাড়ির ভেতরেই আমাদের সাথে এমন জঘন্য কিছু ঘটে যায়, কিন্তু আমরা পরিবার থেকে বিশেষ কোনো সাপোর্ট তো পাই-ই না উল্টো সত্য চাপা রাখতে শিখিয়ে দেয়। শুধুমাত্র চক্ষুলজ্জার ভয়ে! কিন্তু জানেন তো- জমে থাকা এই ক্ষোভ আর মানসিক যন্ত্রণা, সবার সামনে প্রকাশ করতে যে সাহসের প্রয়োজন হয় সেই সাহসও আমরা অনেক সময় – রাস্তায় কুড়িয়ে পেতে পারি !

কেনো বললাম এভাবে কথাটা ?

তা জানার আপনাকে এটি দেখতে হবে।

Movie: HIGHWAY (2014)
IMDb: 7.6
Director: Imtiaz Ali HIGHWAY is a mixture of Determination, Attraction, Feelings, Sentiments, Dedication, and Love of a girl.

পাখির মতন জীবন চাওয়া মেয়েটা হঠাৎ ই কিডন্যাপড হয়। সে তখন জানতো না, এই ভিন্ন এক সফর তার জীবনে সবচেয়ে সুন্দর মুহুর্তগুলো নিয়ে আসবে। নিজের মধ্যে সাহসিকতা আর পরিবর্তন নিয়ে আসবে। চাইল্ড এবিউজ এর মত ব্যাধি নিয়ে একটি মেসেজ দেয়া হয়েছে এখানে। এর স্বীকার হওয়া একটি বাচ্চা কিভাবে বছরের পর বছর এই ঘেন্না নিয়ে বড় হয়, তার একটি ধারণা দেয়া হয়েছে।

জিপি ইন্টারনেট প্যাকেজ । জিপি সিমের ছোট ইনটারনেট প্যাকেজ সমূহ

শুধু তা-ই নয়, এই সফরে মানুষে মানুষে ভালোবাসার এক বিশুদ্ধ সংযোগ দেখানো হয়েছে। সিনেমাটোগ্রাফি ভালো লেগেছে। পরিচালক Imtiaz Ali সেরা ডিরেকশন দিয়েছেন। আলিয়া ভাট এর ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় সিনেমা ছিলো এটি। কিন্তু সে অনেক ভালো পারফর্ম করেছে। ক্যারেক্টারটিতে তাকে যথাযথ মনে হয়েছে আমার।

মানসিক চাপ, ব্যক্তি স্বাধীনতার কমতি আর একটা দীর্ঘশ্বাস নেয়ার জন্য

রনদীপ হুদা সবসময়ই সেরা পারফরম্যান্স দেন। এখানে একজন ট্রাক ড্রাইভারের চরিত্র এত সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছেন যে তাকে একজন ড্রাইভার ছাড়া আর কিছু মনেই হয় নি! এ.আর.রহমান এর মিউজিক, Patakha Guddi গানটাও খুব পছন্দের।

Jahan se tum mujhe laaye ho, mein wahan wapas nahi jaana chahti.
Jahan bhi le ja rahe ho, wahan pahunchna nahi chahti.
Par yeh raasta, yehbahut accha hai.
Mein chahti hoon ki yeh raasta kabhi khatam na ho.
হ্যাপি ওয়াচিং

আমি আজকে প্রায় পাচঁ দিন পর রিভিউ লিখতে বসেছি। আর খুব একটা গ্রুপে একটিভ থাকতেও পারছি না একটু ব্যস্ততার কারনে। মুভিও দেখা হচ্ছে না ঠিক ঠাক। কিন্তু যত ব্যস্ত থাকি গ্রুপ আর গ্রুপের সবাইকে অনেক অনেক মিস করি। এই মাস টা এমন ব্যস্ততায় কাটবে।যাই হোক,আজ খুব পছন্দের একটা মুভির রিভিউ লিখতে বসেছি।

নগদ একাউন্টের পিন কোড পরিবর্তন করার নিয়ম

আমার কাছে মুভিটার প্লট একদম আলাদা লেগেছে। ২০২১ সালে এসে বেশ অনেক গুলো মুভিই দেখা হয়ে গেছে আমার। কিন্তু যত গুলো পছন্দের মুভি আছে তার লিস্ট করলে আমি এই মুভিটির নাম উপরের সারিতে লিখে দিবো।মুভিটা শেষ হবার পর নিজেই কেমন একটা শান্তি পাচ্ছিলাম।

একটা পরিবারের প্রায় সবাই বধির

ভাবুন তো একবার একটা পরিবারের প্রায় সবাই বধির। কেমন কাটবে তাদের সময়! মুভিটি La Famille Belier নামক উপন্যাস এর উপর ভিত্তি করে নির্মান করা হয়েছে। উপন্যাস টি আমি পড়িনি। বই পড়া হয়না আমার। কিন্তু মুভিটা আমার কাছে দারুন উপভোগ্য ছিলো। মুভির সিনেমাটোগ্রাফি, ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক, কালার গ্রেডিং, প্লট, আর সবার অভিনয় ছিলো যথেষ্ট প্রশংসনীয়।

মুভিতে সব থেকে মজার ছিলো অসম্ভব সুন্দর একটা পরিবার। আসলে সেই পরিবার তাদের জীবন জীবিকা, হাসি আনন্দ সব কিছু মিলিয়ে নির্মান করা হয়েছে মুভিটি।মানে মুভি দেখতে বসে আমি নিজেকে সেই পরিবারের একজন ভাবতে শুরু করে দিয়েছিলাম। হারিয়ে গিয়েছিলাম মুভিতে।

বিকাশ এজেন্ট ব্যবসা ও বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

একটা বিষয় শেয়ার করি।আমি বিষয়টি বাস্তব জীবনে পদে পদে উপলব্ধি করি। আর তা হচ্ছে দায়িত্ব! বয়স তোমার যাই হোক না কেনো দায়িত্ব যখন কাধে ভর করে তখন নিজের বয়স ভুলে গিয়ে দায়িত্ব কাধে তুলে নিতে হয়। মুভিটি দেখতে দেখতে আবারো প্রমান পেয়ে গেলাম। তাই তো মাত্র সতেরো বছর বয়সের রুবি তার নিজের জীবনের ইচ্ছা অনিচ্ছা, পছন্দ অপ্ছন্দের কথা ভুলে গিয়ে পরিবারের দায়িত্ব কাধে তুলে নিয়েছে।

◾CODA 2021
◾Genre : Drama/Comedy
◾IMDb : 8.2
◾personal Rating : 9/10
◾Director : Sian Heder
◾Language : English

পরিবারে মা, বাবা, ভাই আর রুবির বন্ডিং ছিলো দেখার মত। মুভিতে সাইন ল্যাংগুয়েজ ব্যাবহার করা হয়েছে কারন পরিবারে রুবি ছাড়া সবাই বধির। কিন্তু তবুও আমার কাছে বিরক্ত লাগেনি এতটুকুও।এবার আমি খুব অল্প করে প্লট নিয়ে লিখবো।

মিউজিক স্কুলে রুবির গানে মুগ্ধ

এক বধির পরিবারের একমাত্র সুস্থ সন্তান রুবি। তাদের মাছের বিজনেস।ব্যবসা করতে গেলে সবার সাথে কথা বলতে হত। সবাই বধির হওয়ার ফলে রুবি সবার সাথে কথা বলতো।বলতে গেলে রুবির উপরেই দায়িত্ব বেশী ছিলো। মেয়েটার গানের গলা খুব ভালো। হলে কি হবে! নিজের পরিবারের কথা চিন্তা করে রুবি বার বার শুধু নিজের স্বপ্ন ত্যাগ করেই যাচ্ছে।

মিউজিক স্কুলে রুবির গানে মুগ্ধ হয়ে টিচার তাকে স্কলারশিপ পাওয়ার ব্যবস্থা করে দেয়। কিন্তু তার পরিবার কে দেখবে কে! আর তাদের ব্যবসারই বা কি হবে! এদিকে তো রুবির গান নিয়ে এক আকাশ সমান স্বপ্ন।তবে একটি রুবির স্বপ্ন শুধু স্বপ্নই থেকে যাবে! না আমি আর কিছু বলছি না। বাকীটা মুভিতেই দেখুন।

শরীর সুস্থ রাখার কৌশল সমূহ শরীর সুস্থ রাখার সহজ উপায় দেখুন এখানে

মুভিতে কিছু কিছু দৃশ্য মন ছুয়ে যাওয়ার মত।যেমন বাবার সাথে মাছ ধরতে যাওয়া, পরিবারের সবার সাথে আড্ডা দেওয়া, স্কুলে গান করা আরো অনেক কিছু।এক কথাই মাইন্ড ফ্রেশ করে দেওয়ার মত একটা মুভি।এত কিছু লিখলাম আর রুবির ভালোবাসা লিখলাম না! এই সতেরো বছর বয়সের মেয়েটির জীবনে ঝিরিঝিরি স্নিগ্ধ বাতাসের মত প্রেম যা মুভির সুন্দরতা কে আরো ফুটিয়ে তুলেছিলো।এক কথায় দারুণ উপভোগ্য একটা মুভি। তো যারা এখনো দেখেন নাই তারা ঝটপট দেখে ফেলুন। আশা করছি মুভিটি সবার ভালো লাগবে। ধন্যবাদ সবাইকে🌹

Add a Comment

Your email address will not be published.